বাড়তে পারে ৪৩তম বিসিএস পরীক্ষার আবেদনের শেষ সময়

বাড়তে পারে ৪৩তম বিসিএস পরীক্ষার আবেদনের শেষ সময়

সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে ৪৩তম বিসিএস পরীক্ষার সার্কুলার। তবে করোনা প্যান্ডেমিকের কারণে দেশের পাবলিক ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর অনার্সের ফাইনাল পরীক্ষা না হওয়ায় এবার ৪৩তম বিসিএস পরীক্ষায় আবেদন করতে পারছেন না লাখো শিক্ষার্থী।শিক্ষার্থীদের এই সমস্যা বিবেচনায় এনেছে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা গত ১০ ডিসেম্বর জানান, ৪৩তম বিসিএস পরীক্ষার আবেদনের সময় বাড়ানোর জন্য পিএসসির সব সদস্যদের নিয়ে আগামী সপ্তাহে বসবে সভা।

পিএসসি বলছে,যে সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের স্নাতক শেষ বর্ষের পরীক্ষা হয়নি কিংবা কিছু পরীক্ষা বাকি আছে তারা চাইলে ৪৩তম বিসিএস আবেদনের সময় বাড়ানোর বিষয়টি বিবেচনা করে দেখবে তারা। এক্ষেত্রে কোন এক বিশ্ববিদ্যালয়কে অবশ্যই পিএসসি বরাবর আবেদন করতে হবে। অন্যথায় বিষয়টি সমাধান করতে পারবে না পিএসসি। তবে এ বিষয়ে এখনও কোন অফিসিয়াল সিদ্ধান্ত জানা যায়নি।

কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানিয়েছে, তাদের স্নাতক শেষ বর্ষের শিক্ষার্থীদের সব বিষয়ের পরীক্ষা শেষ না হলেও তারা ৪৩তম বিসিএসে আবেদন করতে পারবেন। এ প্রসঙ্গে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, বিসিএসে আবেদন করতে হলে একজন শিক্ষার্থীকে অবশ্যই স্নাতকের সব বিষয়ের পরীক্ষা শেষ করতে হবে। এর বাইরে আবেদনের কোনো সুযোগ নেই। কেউ যদি এমন বিজ্ঞপ্তি দিয়ে থাকে, তাহলে সে সম্পর্কে তারাই ভালো বলতে পারবে।

উল্লেখ্য, গত ৩০ নভেম্বর ৪২তম (বিশেষ) ও ৪৩তম (সাধারণ) বিসিএস পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি। ৪৩তম বিসিএস পরীক্ষায় বিভিন্ন ক্যাডারে ১ হাজার ৮১৪ জন কর্মকর্তা নেওয়া হবে। এ বিসিএসে সবচেয়ে বেশি নেওয়া হবে শিক্ষা ক্যাডার যেখানে পদসংখ্যা ৮৪৩টি। এ ছাড়া প্রশাসনে ৩০০, পুলিশে ১০০, পররাষ্ট্রে ২৫, অডিটে ৩৫, ট্যাক্সে ১৯, কাস্টমসে ১৪, সমবায়ে ২০, ডেন্টাল সার্জন ৭৫ জন এবং অন্যান্য ক্যাডারে ৩৮৩ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে।

error: Content is protected !!